আইন না জানা কি অপরাধ? এই প্রশ্নের সহজ উত্তর হ্যাঁ, আইন না জানা অপরাধ। অনেকে আবার মজা করে বলতে পারেন- তবে কি আইনজীবী বা আইনের লোকেরা ছাড়া বাকী সবাই অপরাধী?

দেশের আইন জানা ও মানা একজন সুনাগরিকের অন্যতম কর্তব্য। তবে আইন না জানা অপরাধ কিনা, এই প্রশ্নের উত্তর অতটা সহজ না।?

বিস্তারিত আলোচনা করলে বিষয়টা পরিষ্কার হয়ে যাবে। দেশের সর্বোচ্চ আইন সংবিধানের প্রস্তাবনার চতুর্থ অংশে বলা হয়েছে-

“একে রক্ষার, সমর্থনের এবং নিরাপত্তা বিধানের দায়িত্ব দেশের জনগণকে অর্পণ করা হয়েছে।”

এখন অনেকে বলতে পারেন-তবে কি আইনজীবী বা আইনের লোকেরা ছাড়া অন্য সবাই অপরাধী?

 

আমাদের আইন জানার প্রয়োজন কতটা এখানে নিহিত রয়েছে। আইন যদি নাই জানি তবে আইনের নিরাপত্তা বিধান কিভাবে হবে?

এছাড়া আইনের একটি ম্যাক্সিম আছে, “ইগনোরেন্সিয়া জুরি নন এক্সকিউজা” অর্থাত অপরাধ করে আদালতের কাছে যদি বলেন,

এটা অপরাধ সেটা আপনি জানতেন না! এ কথা বলে বা আইনের অজ্ঞতার কারণ দেখিয়ে আপনি কৃত অপরাধের শাস্তি থেকে কোনভাবেই ছাড় পাবেন না।

অর্থাৎ রাষ্ট্র ধরে নেয় যে, সংশ্লিষ্ট আইনটি সম্পর্কে নাগরিকরা জানেন। এজন্যই আমাদের দৈনন্দিন সাধারণ আইন গুলো জানা উচিত।

 

আমাদের আইন জানার প্রয়োজন কতটা এখানে নিহিত রয়েছে। আইন যদি নাই জানি তবে আইনের নিরাপত্তা বিধান কিভাবে হবে?

আপনি অপরাধ করছেন কিন্তু আপনি যদি আদালতের কাছে বলেন, এটা অপরাধ সেটা আপনি জানতেন না!

 

এ কথা বলে বা আইনের অজ্ঞতার কারণ দেখিয়ে আপনি কৃত অপরাধের শাস্তি থেকে কোনভাবেই ছাড় পাবেন না।

অর্থাৎ রাষ্ট্র ধরে নেয় যে, সংশ্লিষ্ট আইনটি(যে ধরণের অপরাধ সেই আইন) সম্পর্কে নাগরিকরা জানেন।

 

বাস্তবে যদিও মানুষ আইন সচেতন না এবং আইন সম্পর্কে খুব একটা ধারণা রাখেন না ।

সাধারণত আইন কোন কাজটি অপরাধ আর কোন কাজটি অপরাধ নয় তা খুঁজে বের করে এবং কৃত অপরাধমূলক কাজটির জন্য শাস্তির বিধান নিশ্চিত করে।

 

অর্থাৎ আইন তৈরীর মূল উদ্দেশ্য মানুষকে সচেতন করা এবং অপরাধ থেকে দূরে রাখা। সমাজে যাতে অপরাধমূলক কর্মকান্ড কম হয় সেদিকে খেয়াল রাখা।

 

দৈনন্দিন জীবনে আইনের প্রয়োজনীয়তা:

কিন্তু অপরাধ করে কেউ অজ্ঞতার দোহাই দিয়ে পার পাবেনা। এজন্যই আমাদের দৈনন্দিন সাধারণ আইনগুলো জানা উচিত।

শুধু তাই নয়- আইনের অজ্ঞতার কারণে সাধারণ মানুষই বেশি বিপদে পড়ে, নির্যাতিত ও প্রতারিত হয়, সমাজের প্রভাবশালীদের দ্বারা অন্যায়ভাবে নিয়ন্ত্রিত হয়।

 

সুতরাং প্রত্যেকটা মানুষকে আইন বিষয়ে সচেতন হতে হবে। জানতে হবে একটি স্বাধীন দেশের নাগরিক হিসেবে- কি তাঁর জন্য আইন, কি তাঁর অধিকার!

আইন জানলে প্রয়োজনে শাসককেও চ্যালেঞ্জ করা যায়।

 

উদাহরণ হিসেবে রিট-এর কথা বলা যায়। (দেখুন, সংবিধানের অনুচ্ছেদ ৪৪ এবং ১০২ ।)

অন্যের প্রয়োজনে না, নিজের প্রয়োজনে নিজেকে আইন জানতে হবে। আইন সম্পর্কে সচেতন হতে হবে।

 

কারো কাছ থেকে কোন অধিকার প্রাপ্ত হলে, আগে জানতে হবে অধিকার আদায়ের বৈধ পন্থা, বিধি-নিষেদ।

যুগের সাথে-সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে চলার জন্য যেকোন নাগরীকের জন্য আইন জানা তাই অত্যাবশ্যক

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here